‘ছায়ানীড়ে’ সোয়াটের অভিযান সমাপ্ত, নারীসহ ৪ জঙ্গি নিহত

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের প্রেমতলার ‘ছায়ানীড়ে’ জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট সোয়াট টিমের অভিযানে চার জঙ্গি নিহত হয়েছেন। পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, নিহত জঙ্গিদের মধ্যে এক নারী ও তিনজন পুরুষ। নিহতদের দুইজনের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। নিহতরা সবাই নব্য জেএমবির সদস্য বলে জানান শফিকুল ইসলাম ।
এছাড়া জঙ্গিদের হাতে জিম্মি থাকা নয়জনকে উদ্ধার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অভিযানে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের চট্টগ্রামে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জঙ্গি আস্তানার কাছে সম্মেলন করে ডিআইজি অপারেশন অ্যাসল্ট সিক্সটিনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। জঙ্গি আস্তানায় প্রচুর গোলাবারুদ ও বিস্ফোরক থাকায় সেখানে ডাম্পিং অপারেশন চলবে বলেও জানান তিনি।
বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে ছায়ানীড় বাড়িতে জঙ্গিদের আস্তানায় সোয়াতের নেতৃত্বে অভিযান শুরু হয়। নিহতদের মধ্যে একজন আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

উপজেলার প্রেমতলা ওয়ার্ডের চৌধুরী পাড়ার ‘ছায়ানীড়’ নামের দোতলা বাড়িতে এই অভিযানে স্থানীয় পুলিশ ও র‌্যাবের সঙ্গে ঢাকা থেকে যাওয়া পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ও সোয়াট সদস্যরা রয়েছেন।
এদিকে ওই জঙ্গি আস্তানায় অভিযানের সময় সোয়াট টিমের দুইজন সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
বুধবার বিকাল ৩টায় সন্দেহভাজন জঙ্গি ধরতে সীতাকুণ্ডের দুটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু করে পুলিশ। এরমধ্যে একটি আস্তানা থেকে বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। প্রেমতলার অন্য আস্তানাটিতে প্রায় দুই ঘণ্টার মতো পুলিশের সঙ্গে জঙ্গিদের পাল্টপাল্টি গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যা ৬টার দিকে ‘ছায়ানীড়’ নামে ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলে র‌্যাব ও সোয়াত সদস্যরা।
চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তর মসিউদ্দৌলা রেজা জানিয়েছেন, সন্দেহভাজন জঙ্গিদের সন্ধানে দুটি বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এতে একটি থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে প্রথমে দুটি গ্রেনেড ছুড়ে মারা হলে এক পুলিশ সদস্য আহত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *