জঙ্গিবাদ প্রতিহতে সরকার প্রতিজ্ঞ: প্রধানমন্ত্রী

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের জায়গা হবে না। এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আমাদের সরকার এ ব্যাপারে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষণা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন সংস্থার বিজ্ঞানী ও গবেষক এবং মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ফেলোশিপ প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়।অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সন্তানদের প্রতি অভিভাবক, শিক্ষক ও সমাজের সচেতন ব্যক্তিদের নজর রাখার আহ্বান জানান।তিনি বলেন, ‘এখন বিশ্বব্যাপী নতুন একটা উপসর্গ দেখা দিয়েছে। সেটা হচ্ছে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাস এবং মাদকাসক্তি। এর বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে সকলকে আমি অনুরোধ জানাচ্ছি।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের ছেলেমেয়েরা অত্যন্ত মেধাবী। তারা কেবল দেশে না, বিদেশেও পড়ালেখা করে মেধার স্বাক্ষর রেখে যাচ্ছে। এরা (শিক্ষার্থীরা) যেন কেউ বিপথে না যায়, এ ধরনের জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসে যেন সম্পৃক্ত না থাকে, বিশেষভাবে নজর দেবার জন্য শিক্ষক, অভিভাবক থেকে শুরু করে সমাজের সকল সচেতন মানুষের প্রতি আমি আবেদন জানাচ্ছি।’তিনি বলেন, ‘এই সচেতনতা তৈরি করতে পারলে নিশ্চয়ই আমরা আমাদের দেশকে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসমুক্ত রাখতে পারব।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ ট্রাস্ট গঠন করা হয়েছে। এটা করেছি আমরা এ কারণে যে, এর পূর্বেও আমরা বঙ্গবন্ধুর নামে গবেষণার জন্য অনুদান দিয়েছিলাম। অনেকেই চলে গিয়েছিলেন বিদেশে, পড়াশুনা শুরুও করেছিলেন। ক্ষমতার পরিবর্তনে ২০০১ সালে যখন জামায়াত-বিএনপি আসল, তারা এসব বন্ধ করে দিল। যারা ফেলোশিপ নিয়ে বিদেশে গিয়েছিলেন, অর্ধেক দেশে ফিরে আসলেন।’
তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে যেন এ রকম আর কেউ করতে না পারে, সেজন্য আমরা ফান্ডিং করে দেব, যাতে করে সেখানে পর্যাপ্ত টাকা থাকে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সীমিত সম্পদ এটা ঠিক। কিন্তু আমি মনে করি, পরিকল্পিতভাবে এই সীমিত সম্পদ যদি আমরা বৈজ্ঞানিক উপায়ে ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারি, তাহলে আমাদের কারও মুখাপেক্ষী হয়ে চলতে হবে না। আমরা নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে, মাথা উঁচু করে বিশ্বে এগিয়ে যাব। এটাই আমাদের লক্ষ্য।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *