গরু নিয়ে সংঘর্ষে ভারতে বিএসএফের গুলিতে ৩ জন নিহত

মুনা আক্তার, কলকাতা থেকে: ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের সাবরুম মহকুমায় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে তিন গ্রামবাসী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুই জন।
এই ঘটনার পর সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে। সীমান্তজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত জওয়ান। বিএসএফ ও ভারতীয় পুলিশের পদস্হ আধিকারিকরা এলাকায় ছুটে গিয়েছেন।
জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় সাবরুম সীমান্তের হারবাতলী এলাকায় গরু আটককে কেন্দ্র করে গ্রামবাসী এবং বিএসএফের মধ্যে সংঘর্ষের জের ধরে এই ঘটনা ঘটে। বিএসএফ বেশ কিছু গরু আটক করে তাদের পোস্টে নিয়ে আসার সময় গ্রামবাসী বিএসএফের সাথে বিবাদে লিপ্ত হয়। গ্রামবাসী গরুগুলো তাদের বলে দাবি করে। কিন্তু বিএসএফ তা মানতে নারাজ। বিএসএফ গ্রামবাসীদের জানিয়ে দেয় পাচারের সময় তারা গুরুগুলো আটক করেছে।
এ নিয়ে বচসা তুঙ্গে ওঠে এবং এক সময় গ্রামবাসী লাঠিসোটা নিয়ে বিএসএফের ওপর ঝাঁপিয়ে পরে। বেধে যায় সংঘর্ষ। ওই সময় আরও কিছু গ্রামবাসী তাদের সাথে যোগ দেয়। এক সময় বিএসএফ গুলি চালালে তিন গ্রামবাসী নিহত হন।
নিহতরা হলেন মনকুমার ত্রিপুরা, পরকুমার ত্রিপুরা এবং সুরলক্ষী ত্রিপুরা। আহতরা হলেন শাম ত্রিপুরা এবং জীবন কুমার ত্রিপুরা। নিহতদের সবারই মাথায় গুলি লেগেছে বলে জানা গেছে।
বিএসএফের দাবি গ্রামবাসীরা গরু ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতে থাকলে বিএসএফ গুলি চালায়। হাবাতলী ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের লাগোয়া। এই হাবাতলী দিয়ে গরু পাচার হয়ে থাকে। গরু পাচার নিয়ে বিএসএফের সাথে গ্রামবাসীদের বরাবরই বিরোধ লেগে আছে। সম্পর্ক ভাল যাচ্ছে না বিএসএফের সাথে গ্রামবাসীদের। ইস্যু গরু পাচার।বিএসএফের পদস্থ কর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *