বাংলাদেশে আরো ৩ জঙ্গি আস্তানার সন্ধান, তৈরি হচ্ছে নতুন জঙ্গি

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম: সিলেটের পর মৌলভী বাজার ও কুমিল্লায় তিনটি জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া গেছে৷ কুমিল্লার আস্তানায় বিস্ফোরক নিয়ে অবস্থান করছে এক জঙ্গি৷ আর মৌলভী বাজারে আস্তানা দু’টির ভিতর থেকে বিস্ফোরণ ও গুলির শব্দ পাওয়া গেছে৷
পুলিশ জানিয়েছে, এই দুই আস্তানায় কমপক্ষে ১০ জন জঙ্গি আছে৷ এই দু’টি আস্তানার একটি মৌলভী বাজার পৌরসভার বড়হাট এলাকার একটি দোতলা বাড়ি৷ অন্যটি মৌলভী বাজার সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের সরকার বাজার নাসিরপুর গ্রামের দেয়াল ঘেরা একটি একতলা ভবন৷ দু’টি বাড়িরই মালিক লন্ডন প্রবাসী সাইফুর রহমান৷ তিনমাস আগে ব্যবসায়ী পরিচয়ে শহরের বাড়িটি ভাড়া নেওয়া হয়৷ এরপর কেয়ারটেকারের মাধ্যমে ভাড়া নেওয়া হয় গ্রামের বাড়িটিও৷ ইতিমধ্যে বাড়ি দু’টির মালিক সাইফুর রহমানের শ্যালক মিজানুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ৷ এছাড়া বাড়ি দু’টির আশপাশ থেকে ১১ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে৷
মৌলভী বাজারের ঘটনাস্থলে অবস্থানরত সাংবাদিক নুরুজ্জামান লাবু জানান, ‘‘দু’টি বাড়িতে ঠিক কখন অভিযোন চালানো হবে, তা জানা যায়নি৷ তবে অভিযানের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ঢাকা থেকে পুলিশের বিশেষ টিম পৌঁছেছে৷’’ শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, সন্ধ্যায় একটি বাড়িতে অভিযান শুরু হয়েছে৷ এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘‘প্রয়োজন হলে অভিযানে সেনাবাহিনী অংশ নেবে৷ আমার কাছে যা তথ্য রয়েছে, তাতে দু’টি আস্তানায় ১০-১২ জন জঙ্গি থাকতে পারে৷’’
মঙ্গলবার গভীর রাত থেকেই পুলিশ এই বাড়ি দু’টি ঘিরে রাখে৷ কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)-এর এডিসি মো. সাইফুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘‘মঙ্গলবার রাতে আমরা আমাদের তথ্যের ভিত্তিতে শহরের বাড়িটি ঘেরাও করি৷ এরপর নাসিরপুর গ্রামের আস্তানা ঘেরাও করতে গেলে ভিতর থেকে গ্রেনেড ছুড়ে মারা হয়৷ তখন আমরাও পাল্টা গুলি ছুড়ি৷” তিনি জানান, ‘‘দু’টি আস্তানায় প্রচুর বিস্ফোরক ও বোমা আছে বলে ধারণা করছি আমরা৷’’
সাংবাদিক নুরুজ্জামান লাবু জানান, ‘‘পুলিশকে নাসিরপুর গ্রামের আস্তানার খবর দেয় ঐ বাড়ি কেয়ারটেকার জুয়েল মিয়া৷ শহরের বাড়িতে পুলিশের ঘেরাওয়ের খবর পেয়ে সে পুলিশকে এই বাড়ির খবরও জানায়৷’’
কুমিল্লায় জঙ্গি আস্তানা
কুমিল্লার কোটবাড়ি এলাকায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে অন্য বাড়িটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ৷ বাড়িটিতে প্রচুর বিস্ফোরকসহ একজন জঙ্গি রয়েছে বলে কুমিল্লার অ্যাডিশনাল পুলিশ সুপার তানভীর সালেহীন ইমন সংবাদমাধ্যমেকে জানিয়েছেন৷
পুলিশ বাড়িটি ঘিরে রেখেছে৷ তবে বৃহস্পতিবার কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন৷ তাই প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) জানান, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণের আগে জঙ্গি আস্তানায় কোনো ধরনের অভিযান চালানো হবে না৷ তিনি বলেন, প্রয়োজন হলে ভোট শেষ হওয়ার পর এখানে অভিযান চালানো হবে৷
এর আগে গত বৃহস্পতিবার থেকে টানা চারদিন সিলেটের জঙ্গি আস্তানা শিববাড়ির আতিয়া মহলে অভিযান চালানো হয়৷ ঐ অভিযানে এক নারীসহ চারজন জঙ্গি নিহত হয়৷ কিন্তু অভিযানের দ্বিতীয় দিন সন্ধ্যার পর আস্তানার কাছেই আবারো বোমা হামলা হলে দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ছ’জন নিহত হন৷
সিলেটের এই জঙ্গি আস্তানার ঘটনার আগে ঢাকা মহানগরীতে এক সপ্তাহের ব্যবধানে তিনটি আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটে৷ ১৭ মার্চ আশকোনায় র‌্যাবের নির্মানাধীন সদর দপ্তরে, ১৮ মার্চ খিলগাঁওয়ে র‌্যাবের চেকপোস্টে এবং ২৪ মার্চ এয়ারপোর্টের সামনে পুলিশ বক্সের কাছে৷ শেষের ঘটনাটি ঘটে সিলেটের ঘটনা শুরুর ১২ ঘণ্টা পরে৷ আর সিলেটের ঘটনা চলমান অবস্থায় ঘটে ঢাকার বিমানবন্দরের ঘটনাটা৷
এই পরিস্থিতির ব্যাখ্যা দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধ বিজ্ঞানের অধ্যাপক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন৷ তিনি ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘হোলি আর্টিজানের হামলার পর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বেশ কিছু জঙ্গিবিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে৷ অনেক জঙ্গি নিহতও হয়েছে৷ কিন্তু তাদের তৎপরতা কমছে না৷ কারণ নতুন নতুন জঙ্গির সৃষ্টি হচ্ছে৷ জঙ্গি নির্মূল করার জন্য ‘মিলিটারি সলিউশন’ দিয়ে হবে না৷ এর মূলে কাজ করতে হবে৷ সামাজিকভাবে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কাজ করতে হবে৷’’
তাঁর কথায়, ‘‘জঙ্গিদের হত্যা করে জঙ্গি দমন পুরোপুরি সম্ভব নয়৷ এর জন্য জঙ্গিবাদকে পরাজিত করতে হবে৷’’
সূত্র: ডয়চে ভেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *