কামিনীগাছের নিচে চিরনিদ্রায় ‘নীল নয়না’ মডেল

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, রাজশাহী থেকে: রাজশাহীর হেতেমখাঁ গোরস্থানে কামিনীগাছের নিচেই সমাহিত হলেন ‘নীল নয়না’ খ্যাত মালদ্বীপের মডেল রাওদা আতিফ।শনিবার বাদ জোহর তাকে দাফন করা হয়। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন দাফন কাজ সম্পন্ন করে।
এসময় নিজ দেশ মালদ্বীপ থেকে ছুঁটে আসা বাবা মোহাম্মদ আতিফ, মা আমিনাথ মুহারমিমাথ ও দুই ভাইসহ ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের রাওদার সহপাঠীরা উপস্থিত ছিলেন।এছাড়া দাফনের সময় মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত আইশাদ শান সাকির ও কমনওয়েলথের সেকেন্ড সেক্রেটারি ইসমাইল মুফিদও উপস্থিত ছিলেন।রওদাকে দাফনের সময় পরিবার ও সহপাঠীদের কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে সেখানকার পরিবেশ।এর আগে বিদেশী এই শিক্ষার্থীর দাফনের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও মালদ্বীপ দূতাবাসের আইনি প্রক্রিয়া শেষ করা হয়।
তবে রাওদার মৃত্যু নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলতে রাজি হয়নি তার পরিবার। এমনকি সে দেশের দূতাবাসের কোনো কর্মকর্তাও এনিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।
রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানার ওসি জিল্লুর রহমান জানান, দুদিন ধরে চিন্তাভাবনার পর রাওদার বাবা-মা রাজশাহীতেই তাকে দাফনের সিদ্ধান্তের কথা পুলিশকে জানান। পরে তাদের উপস্থিতিতেই রাওদাকে দাফন করা হয়েছে।কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের রাজশাহী শাখার সংগঠক মিলন আহমেদ জানান, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাদের কাছে রাওদার মরদেহ হস্তান্তর করে পুলিশ। এজন্য সমস্ত কাগজপত্র ও আইনি প্রক্রিয়া শেষে দাফন করা হয়।
এদিকে ময়নাতদন্ত শেষে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বোর্ড শনিবার বিকাল ৩টার দিকে পুলিশের কাছে প্রতিবেদন হস্তান্তর করেছে।
ময়নাতদন্তকারী বোর্ডের প্রধান ও রামেক হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ডা. মনসুর রহমান জানান, এখন পর্যন্ত যা পাওয়া গেছে তাতে রাওদা আত্মহত্যা করেছে। ঝুলেই সে আত্মহত্যা করেছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে ধর্ষণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি।

তিনি জানান, পাকস্থলীতে কোনো বিষক্রিয়া ছিল কি না তা জানতে ভিসেরা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে ভিসেরা রিপোর্ট এলে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানা যাবে। তখন সুনির্দিষ্টভাবে প্রতিবেদনও দেয়া হবে।

রাওদার মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে বৃহস্পতিবার পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি করে রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ।

ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবদুল আজিজ রিয়াদ বলেন, ‘রাওদা মালদ্বীপের রাষ্ট্রীয় স্কলারশিপ নিয়ে এখানে পড়তে এসেছিলেন। তার এই অকাল মৃত্যুতে আমরা হতবাক ও শোকাহত।’

তিনি জানান, কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. আবদুল মুকিত সরকারকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

গত বুধবার বেলা মাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ ছাত্রী হোস্টেলের ২০৯ নম্বর কক্ষে ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় রাওদা আতিফের ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়। এমবিবিএস ১৩তম ব্যাচের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন রাওদা। বিদেশী কোটায় ভর্তির পর গত বছরের ১৪ জানুয়ারি মহিলা হোস্টেলের দ্বিতীয় তলার ওই কক্ষে ওঠেছিলেন রাওদা।

২০১৬ সালের অক্টোবরে বিখ্যাত ‘ভোগ’ সাময়িকীর নবম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সংখ্যায় এশিয়ার বিভিন্ন দেশের মডেলদের নিয়ে প্রচ্ছদ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ‘বৈচিত্র্যের সৌন্দর্য উদযাপন’ (সেলিব্রটিং বিউটি ইন ডাইভার্সিটি) শিরোনামের ওই প্রতিবেদনে স্থান পেয়েছিলেন মালদ্বীপের ‘নীল নয়না’ এই মডেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *