হাবাসপুর আস্তানায় ৫ জঙ্গি নিহত

ফয়সাল আজম অপু, টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, রাজশাহী থেকে : রাজশাহীর গোদাগাড়ীর হাবাসপুরে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়িতে গতকাল বুধবার রাত থেকে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। রাত একটা থেকে শুরু হওয়া এই অভিযানে এখন পর্যন্ত ছয়জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে পাঁচজন জঙ্গি এবং একজন ফায়ার সার্ভিসের সদস্য। নিহতেরা হলেন সাজ্জাদ (৪৫), তার বউ বেলী, ছেলে আল-আমিন, আশরাফুল মেয়ে কারিমা।
গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিবজুর আলম মুন্সি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ জানিয়েছে, অভিযান চলাকালে গোলাগুলি ও বিস্ফোরণে জঙ্গিদের পাচজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া জঙ্গিদের ছোড়া বল্লমের আঘাতে আব্দুল মতিন নামে ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মী নিহত হয়েছেন।
বুধবার দিবাগত রাত ৩টা থেকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার হাবাসপুর মাছমারা বেনীপুর গ্রামের আল আমিন নামের এক ব্যক্তির বাড়ি ঘিরে রাখে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিক থেকে পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযানের প্রস্ততি নিতে থাকে। একপর্যায়ে ডাকা হয় ফায়ার সার্ভিসের একটি দল। তারা গিয়ে বাড়িটিতে দূর থেকে পানি ছিটিয়ে বিস্ফোরক নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু তিন জঙ্গি বাড়ির ভেতর থেকে বের হয়ে তাদের ওপর আত্মঘাতী বোমা হামলা চালায় এবং বল্লম দিয়ে হামলা করে।
এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে মৃত জঙ্গিদের পড়ে থাকতে দেখা যায়। তবে বোমায় এবং বল্লমের আঘাতে এসআই উৎপল, কনস্টেবল তাজুল ও ফায়ার সার্ভিসকর্মী আব্দুল মতিন আহত হন। পরে তাদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফায়ার সার্ভিস কর্মী মতিন মারা যান। এছাড়া দেড় মাসের এক মেয়ে শিশু এবং ৬-৭ বছরের এক ছেলে শিশুকে ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ওই বাড়িটির মালিক সাজ্জাদ হোসেন। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে ওই বাড়িতে বসবাস করেন। দুই মাস আগে মাঠের মধ্যে সাজ্জাদ বাড়িটি তৈরি করেছেন। তার ছেলে আলামিন ও তার ভাই সোয়েব কৃষি কাজ করে এবং সাজ্জাদ ফেরি করে গ্রামে গ্রামে কাপড় বিক্রি করেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *