মাহির বাসায় লিগ্যাল নোটিশ

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি কিছুদিন আগে হার্টবিট প্রোডাকশনের ‘মনে রেখো’ নামে নতুন একটি ছবির কাজ শুরু করেন। এ ছবিতে তার বিপরীতে কাজ করেন কলকাতার অভিনেতা বনি সেনগুপ্ত। কিন্তু কিছুদিন শুটিংয়ের পর মাহির সঙ্গে প্রযোজকের নানান ঝামেলা তৈরি হয়। গত মঙ্গলবার ছবির প্রযোজক ও হার্টবিট প্রোডাকশনের কর্ণধার তাপসী ফারুক মাহিকে লিগ্যাল নোটিস পাঠান। ওই নোটিসে মাহির বিরুদ্ধে চুক্তির বাইরে অতিরিক্ত টাকা দাবি, ছবির শুটিংয়ে শিডিউল না দেয়ার অভিযোগ করা হয়েছে। এ বিষয়টি মানবজমিনকে নিশ্চিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। মূলত প্রযোজকের অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্বাক্ষরিত এক লিগ্যাল নোটিস মাহির উত্তরার বাসার ঠিকানায় পাঠানো হয়। নোটিসে আরো বলা হয়, শিডিউল অনুয়ায়ী ছবিটি নির্মাণের মাঝপথে এসে মাহি কাজ করছেন না। চুক্তির বাইরে আরো দুই লাখ টাকা দাবি করছেন। এই নোটিস পাওয়ার পর ‘মনে রেখো’ ছবির নির্মাণ কাজ শেষ করার জন্য প্রয়োজনীয় শিডিউল দেয়ার কথা জানানো হয়। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে গত দুদিন ধরে বান্দরবানে একে সোহেলের ‘পবিত্র ভালোবাসা’ ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছেন বলে জানিয়েছেন মাহি। তিনি এসব প্রসঙ্গে বলেন, বান্দরবানে ২০শে মে পর্যন্ত আমার শুটিং রয়েছে। এখানে চিম্বুকের আশপাশের এলাকায় ‘পবিত্র ভালোবাসা’ ছবির কাজ করছি। আর একটি ছবির শুটিং করতে ৩৫ দিন সময় লাগে। সেখানে ‘মনে রেখো’ ছবির প্রযোজক ৪৫ দিন সময় নিয়েছিলেন। তারপর আরও ১৫ দিন সময় নেন। তখন এই ছবির স্বার্থে অন্য ছবিগুলোর শুটিংয়ের শিডিউল পিছিয়ে দিয়ে প্রযোজককে ডেট দিয়েছিলাম। এতদিনেও যদি ছবির শুটিং শেষ করতে না পারেন, তবে আমার কী করার আছে! আমি তো একটি ছবির জন্য অন্য ছবির প্রযোজক ও পরিচালকের সঙ্গে প্রতারণা করতে পারব না। মাহি আরো বলেন, আমি ঢাকায় ফিরে এই লিগ্যাল নোটিসের বিষয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলব। উল্লেখ্য, মাহি গত ১৯শে মার্চ ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘মনে রেখো’ ছবির কাজ শুরু করেন। আসছে ঈদে ছবিটি মুক্তি দিতে চান ছবির পরিচালক ও প্রযোজক। এ ছবির বাইরে মাহি সম্প্রতি মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘জান্নাত’ ছবির কাজ শেষ করেছেন। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন সাইমন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *