‘ইন্ডাস্ট্রির কিছু লোক চলচ্চিত্রের ধ্বংসের জন্য কলকাঠি নাড়ছে’

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নিপুণ। অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ দু’বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। কয়েকদিন আগে এ অভিনেত্রী উত্তম আকাশের পরিচালনায় ‘ধূসর কুয়াশা’ নামে একটি ছবির কাজ শেষ করেছেন। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করছেন নবাগত মুখ মুন্না। ছবিতে কি ধরনের গল্প রয়েছে জানতে চাইলে নিপুণ মানবজমিনকে বলেন, এ ছবিতে আমার চরিত্রের নাম তানিশা। মূলত ফেসবুক নিয়ে এ ছবির গল্প। ফেসবুকের সূত্র ধরে কিভাবে মেয়ে ও বাচ্চারা কিডন্যাপ হয়ে যায় এমন একটি গল্প আছে এ ছবিতে। এ ছবির শুটিং শেষ। শুধু গানের কাজ ও ডাবিং বাকি রয়েছে। আমার বিশ্বাস, ছবির গল্পটা দর্শক পছন্দ করবে। এদিকে এবারের চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে বেশ উচ্ছসিত নিপূণ। বেশ আনন্দ নিয়েই ভোট দিয়েছেন তিনি। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুরানো কমিটি তেমন কোনো কাজ করেনি। বলতে গেলে নিজেদের কথাই শুধু ভেবেছেন তারা। এজন্যই মনে হয় তাদের এবার এত বড় পরাজয়। আসলে নেতৃত্বে গেলে সব শিল্পীর কথা ভাবতে হবে। নতুন কমিটির কাছে আমার প্রত্যাশা অনেক। কারণ তাদের এবারের এই পজিশনে আসতে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। আমার বিশ্বাস, নতুন কমিটি এবার ভালো কিছু কাজ করবে। কারণ তারা কষ্ট করে এই জায়গাটা পেয়েছে। ক্যারিয়ারে দশ বছরের মধ্যে এবারের নির্বাচন আমার কাছে ভালো লেগেছে। অনেক তারকাশিল্পী এবারের নির্বাচনে ভোট দিতে এসেছিল। চলচ্চিত্রের বর্তমান অবস্থা নাজুক। সেই জায়গা থেকে উত্তরণ দরকার বলেও মনে করেন নিপুন। তিনি বলেন, ইন্ডাস্ট্রির কিছু লোক চলচ্চিত্রের ধ্বংসের জন্য কলকাঠি নাড়ছে। সিনিয়র পরিচালক, কলাকুশলীরা যেন কাজ করতে না পারে সেজন্য এ লোকগুলো একটা গ্রুপ বেঁধে তাদেরকে কোনঠাসা করে রেখেছিল। এখন সেই গ্রুপটাকে ভাঙ্গতে হবে। চলচ্চিত্রে কোনো গ্রুপিং থাকলে কখনই এর উন্নতি হবে না। এভাবে চললে একটা পক্ষই শুধু লাভবান হবে। নির্মাতা, জুনিয়র আর্টিস্ট, টেকনিশিয়ানদের হাতে কাজ নেই। এর মূল কারণ ঐ গ্রুপটা কৌশলে ইন্ডাস্ট্রিতে ঢুকে তাদের স্বার্থে কাজ করেছেন। অন্যদের কথা ভাবেননি। নিপুণ আরও বলেন, আমি তো মনে করি আমাদের নির্মাতারা অনেক গুণী। শুধু গ্রুপিংয়ের কারণে চলচ্চিত্রের এখন এত দুরবস্থা। আর একটা বিষয় বলি, কলকাতা থেকে এসে জিৎ কেনো বাংলাদেশের ছবিতে ইনভেস্ট করবেন ? আমি তো টাকা থাকলেও কলকাতার ছবিতে ইনভেস্ট করতে পারছি না। তথ্য মন্ত্রণালয় কেনো এসব অ্যালাউ করছে। এসব কারণে অনেকে লবিং করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পাচ্ছেন। আমি যে দু’বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি। তখন তো জানতামই না লবিং বিষয়টি কি ? এজন্যই তো আমার প্রশ্ন আমাদের ঈদে এসে জিৎ কেনো ছবিতে ইনভেস্ট করছেন। আমি তো তাদের দূর্গাপূজার কোনো ছবিতে গিয়ে ইনভেস্ট করতে পারছি না। আমি যদি তাদের ছবিতে ইনভেস্ট করতে চাই তারা কি আমাকে কলকাতায় সেই সুযোগ দিবে? তাহলে জিৎকে এই অনুমতি কে দিলো যে উনি বাংলাদেশের ছবিতে ইনভেস্ট করবেন। নিশ্চইয়ই তাকে কেউ এ বিষয়ে সাহায্য করেছে। আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করুন কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু ইনভেস্ট কেনো করবেন? আর উনার দেশের নায়িকাকে তো এমন অশ্লীলভাবে নাচানো হয়নি। তাহলে নুসরাত ফারিয়াকে কেনো এভাবে নাচানো হলো। আমি তো নুসরাত ফারিয়ার দোষ দিব না। ‘বস টু’ ছবিতে তো শুভশ্রীও রয়েছে। তাকে তো ওইভাবে উপস্থাপনা করা হলো না। তাহলে নুসরাত ফারিয়াকে কেনো এভাবে গানের মধ্যে উপস্থাপন করা হলো। এর কারণ হিসেবে নিপুণ বলেন, আমার তো মনে হয় তারা ভেবেছে মেয়েটা বাংলাদেশের। মেয়েটা নতুন, কিছুই বলতে পারবে না। আর তুমি জিৎ ডমিনেট করবা। ব্যাপারটা যদি আমি এভাবে দেখি? আমি এজন্য নুসরাত ফারিয়ার দোষ দিব না। আমি যখন পারফর্মার এবং আমাকে যখন বলা হবে এই কস্টিউম গানে ডিমান্ড করছে। তখন আমি তো কোরিওগ্রাফারের কথাই শুনব। বাবা যাদব পরিচালিত ‘বস টু’ ছবিতে নুসরাত ফারিয়ার ‘আল্লাহ মেহেরবান’ শিরোনামের গানের ব্যাপারে এমন মন্তব্য করেন নিপুণ। তিনি আরো বলেন, আমার মনে হয় তারা এই কাজগুলো ইচ্ছেকৃতভাবে করেছেন। নুসরাত ফারিয়াকে দিয়ে এটা করানো হয়েছে। কেবল ভালো কাজ করা শুরু করেছে মেয়েটা। কেনো ভালো কাজ করবে, তাই তার ফিল্মি বাজারটা নষ্ট করার জন্য এমন করা হয়েছে। এদিকে সামনে ঈদের জন্য বেশকিছু নাটকের গল্প বাসায় জমা হয়েছে নিপুণের। ১০ই জুনের পর ঈদের এসব বিশেষ নাটকে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন এ অভিনেত্রী।
সূত্র: মানবজমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *