কাতারের পাশে দাঁড়ালেন এরদোগান

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরব ও তার মিত্র কয়েকটি দেশের অবরোধের মুখে পড়া কাতারের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী দেশ তুরস্ক। কাতারের পক্ষ নিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোগান বলেছেন, উপসাগরীয় দেশটির ‘সন্ত্রাসবাদে’ সমর্থন দেয়ার বিষয়টি সত্য হলে আমি ব্যক্তিগতভাবে হস্তক্ষেপ করব। মঙ্গলবার কাতারকে সমর্থন জানিয়ে দেশটির সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নেরও ঘোষণা দেন এরদোগান।
তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘শুরুতেই আমাকে বলতে দেয়া উচিত যে, আমরা মনে করি কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপ ভালো কিছু নয়।’

তিনি বলেন, ‘তুরস্ক কাতারের সঙ্গে তার সম্পর্ক অব্যাহত রাখবে এবং সম্পর্ক আরো জোরদার করবে, যেমনটা আমরা আমাদের বন্ধুদের সঙ্গে করেছি যারা আমাদের কঠিন (ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের) সময়ে সমর্থন দিয়েছিল।’

কাতারের সঙ্গে তুরস্কের উষ্ণ সম্পর্ক রয়েছে। একই সঙ্গে সৌদির আরবসহ আরব উপসাগরীয় দেশগুলোর সঙ্গেও দেশটির ভালো সম্পর্ক রয়েছে।

সৌদি আরবের সমালোচনা থেকে সতর্কভাবে বিরত থেকে উপসাগরীয় দেশগুলাকে ‘নিজেদের মতপার্থক্য আলোচনার মাধ্যমে সমাধান’ করার আহ্বান জানান এরদোগান।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শান্ত থেকে গঠনমূলক মনোভাব দেখানোয় কাতারের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘কাতারকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা… সমস্যার কোনো সমাধান বয়ে আনবে না।’

সোমবার ‘সন্ত্রাসবাদে সমর্থন দেয়ার’ অভিযোগ এনে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন এবং দেশটির সঙ্গে স্থল ও আকাশ যোগাযোগ বন্ধ করে সৌদি আরব, মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। তাদের সমর্থনে একই কাজ করে ইয়েমেন, লিবিয়া ও মালদ্বীপ।

এরদোগান বলেন, ‘কাতারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে সমর্থন দেয়ার অভিযোগটি গুরুতর। আমি কাতারের নেতাদের ভালো বলেই জানি। যদি তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সত্য হয়, আমিই প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে তাদের বিরুদ্ধে সংঘাতে যাব।’

এদিকে কাতারের ওপর অবরোধ আরোপের কৃতিত্ব দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেছে ইসরাইল। দৃশ্যতঃ ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসকে সমর্থন দেয়ায় ইসরাইলের আনা অভিযোগের ভিত্তিতেই কাতারের ওপর অবরোধ আরোপ করেছে সৌদি ও তার মিত্ররা।
সূত্র: আলজাজিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *