সৌদি-ইসরাইল বন্ধুসুলভ আচরণ: মুসলিম ব্রাদারহুডের নিন্দা

টাইমস আই বেঙ্গলী ডকটম, আন্তজাতিক ডেস্ক : মুসলিম ব্রাদারহুড সৌদি আরবের সাম্প্রতিক আচরণের তীব্র সমালোচনা করেছে। কাতারকে  মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রতি সাহায্য বন্ধ করে দিতে বলায়  সৌদি আরবের প্রতি ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে দলটি । মঙ্গলবার সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের শর্ত হিসেবে কাতারকে হামাস ও মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রতি সমর্থন দেয়া বন্ধ করে দিতে বলে সৌদি সরকার। সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জাবির ফ্রান্স সফরকালে বলেন, দোহার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করার সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তটি অবশ্যই কাতারকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে নয় বরং হামাস ও মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রতি কাতারের সমর্থন দেয়া বন্ধ করতে বাধ্য করার জন্যে। ব্রাদারহুড বুধবারের এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রতি সৌদি কর্মকর্তাদের অভিযোগ মিথ্যাচার ও ধৃষ্টতাপূর্ণ।’ তারা গভীর উদ্বেগ সহকারে সৌদি কর্মকর্তাদের অভিযোগের নিন্দা জানিয়েছে। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘মুসলিম ব্রাদারহুড প্রতিষ্ঠার পর থেকেই উপসাগরীয় দেশগুলোর জনগণ ও শাসকদের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্ক বজায় রেখেছে সাংস্কৃতিক, বৈজ্ঞানিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে’।  ব্রাদারহুড নেতা প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি হচ্ছেন মিশরের প্রথম নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি, যিনি ২০১৩ সালের এক সামরিক অভ্যুত্থানে মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হন। মিশরের ২০১৩ সালের অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে ব্রাদারহুড শান্তিপূর্ণ উপায়ে প্রতিবাদ করে যাতে রিয়াদ ও আবুধাবীর খোলাখুলি সমর্থন ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে মিশর, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত এ দলটিকে নিষিদ্ধ করে। সোমবার পাঁচটি আরব দেশ – সৌদি আরব, মিশর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও ইয়েমেন হঠাৎ কাতারের সঙ্গে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সন্ত্রাসবাদের সমর্থন করার অভিযোগে। পরেরদিন মৌরিতানিয়া পাঁচ আরব দেশের পথ অনুসরণ করে অন্যদিকে জর্ডানের সাথে দোহার কূটনৈতিক সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে।
সৌদি আরব কাতারের সাথে তার স্থল সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে এবং ভৌগোলিকভাবে ক্ষুদ্র উপসাগরীয় রাষ্ট্রকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। দোহা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ।অন্যদিকে ইসরাইল সৌদি আরবের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসা করেছে এবং এ সিদ্ধান্তকে ইসরাইলের বিজয় বলে অভিহিত করেছে।
বুধবারের এই বিবৃতিতে হামাস বলেছে, জুবাইরের মন্তব্যে ফিলিস্তিনি জনগণ, আরব বিশ্ব এবং ইসলামি জাতিসমূহ মর্মাহত হয়েছে। তার এই বিবৃতি ব্যবহার করে ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের অধিকার আরো হরণ করবে।

সূত্র: আনাদোলু নিউজ এজেন্সি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *