নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর শীর্ষ নেতারা এবার সবাই রাজধানীতেই ঈদ উদযাপন করবেন। সিনিয়র নেতাদের মধ্যে অনেকেই থাকবেন ঢাকায়। বাকিরা ইতিমধ্যে নেতাকর্মীদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় চলে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এবার ঢাকায় ঈদ করবেন। ঈদের দিন বিশিষ্ট ব্যক্তি, কূটনীতিক ছাড়াও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন তারা।
আওয়ামী লীগ : আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঈদের দিন তার সরকারি বাসভবন গণভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত আগত অতিথি, নেতাকর্মী ও জনসাধারণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন তিনি। আর সাড়ে ১১টার পর থেকে বিচারপতি ও কূটনৈতিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী।
আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের মধ্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত তার নির্বাচনী এলাকা সিলেট, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ভোলায় ঈদ করবেন।
প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিম, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, কর্নেল (অব.) ফারুক খান, ড. আবদুর রাজ্জাক ঢাকায় ঈদ করবেন।
দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ঈদ করবেন। ঈদের নামাজ শেষে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে দুপুরেই ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন।
নিজের নির্বাচনী এলাকা ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ঈদ করবেন আওয়ামী লীগের আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ঢাকা, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সিলেট, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল কুমিল্লা এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ কেরানীগঞ্জে ঈদ করবেন।
বিএনপি : বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ঈদের দিন দুপুর ১২টা থেকে পৌনে ১টা পর্যন্ত কূটনীতিকদের সঙ্গে, এরপর বিশিষ্ট নাগরিক এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন তিনি।
এছাড়া বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অস্ট্রেলিয়া, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, এমকে আনোয়ার, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান ঢাকায় ঈদ করবেন।
স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম যশোরে, ড. আবদুল মঈন খান নরসিংদী ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রামে ঈদ করবেন। গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের ঈদের দিন সকালে তার নির্বাচনী এলাকা কেরানীগঞ্জে সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করে ঢাকায় চেয়ারপারসনের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।
আবদুল্লাহ আল নোমান চট্টগ্রামে এবং সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ঢাকায় ঈদ করবেন। স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাহ উদ্দিন আহমেদ এবারও ভারতের শিলংয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঈদ কাটাবেন।
জাতীয় পার্টি : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ঈদ করবেন ঢাকায়। ঈদের নামাজ পড়বেন গুলশানের আজাদ মসজিদে। এরপর তিনি তার বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসভবনে বরাবরের মতো এবারও দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।
পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ঈদ করবেন ঢাকায়। আরেক কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের ঈদ করবেন ঢাকার উত্তরায় নিজের বাসায়। মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এবং তার স্ত্রী প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসরিন জাহান রতা ঈদ করবেন বরিশালের বাকেরগঞ্জে।
প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহম্মেদ বাবলু চট্টগ্রামে নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করবেন। প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট কাজী ফিরোজ রশীদ ও সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা ঢাকায় ঈদ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *