‘ঘরে ঘরে গিয়ে মশারি টানাতে পারব না’

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: চিকুনগুনিয়া নিয়ে সবাইকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক।একই সঙ্গে তিনি এই রোগ মহামারি আকার ধারণ করার জন্য তার প্রতিষ্ঠানের কোনো দায় নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। শুক্রবার ঢাকা উত্তরের নগরভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে আনিসুল হক এ পরামর্শ দেন। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘চিকুনগুনিয়া আক্রান্তকে মশারির মধ্যে রাখা দরকার। এখন মানুষকে যদি এসবও আমাদের জানাতে হয়, তাহলে আর কী বলব।’ অনেকটা ক্ষোভের সুরে আনিসুল হক বলেন, ‘আমার পক্ষে মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে মশারি টানানো সম্ভব নয়। কারো ঘরে মশা থাকলে তাও নিধন করা সম্ভব নয়। এসব বিষয়ে নগরবাসীকেই সচেতন হতে হবে।’ সংবাদ সম্মেলনে বার বার উল্লেখ করা হয়, ড্রেনের মশার জন্য চিকুনগুনিয়া হয় না। তবে চিকুনগুনিয়া আক্রান্তকে অন্য মশা কামড়ালে সে মশা থেকে এই রোগ ছড়াতে পারে। এ সময় সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, মশা নিধনের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের। তাদের ব্যর্থতায় এ রোগের প্রভাব বিস্তার করেছে কিনা?
জবাবে মেয়র বলেন, ‘আমাদের অনেক দোষ আছে, আমি মানি। তবে যেখানে ৫ দিন পরপর মশা নিধনের ওষুধ প্রয়োগের কথা, আমরা তিন দিন পর পর প্রয়োগ করছি। এরপরও এই চিকুনগুনিয়ার দায় আমরা কীভাবে নিতে পারি?’
অপর এক প্রশ্নের জবাবে আনিসুল হক বলেন, ‘চিকুনগুনিয়া মহামারি আকার ধারণ করেছে কিনা তা সরকার দেখবে। মহামারির জন্য ডিএনসিসি কোনোভাবেই দায় নেবে না।’
সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মেসবাউল ইসলাম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এস এম এম সালেহ ভূঁইয়া, প্রধান বর্জ্য কর্মকর্তা কমডোর আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সূত্র: পরিবর্তন ডটকম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *