সিঙ্গাপুর নেয়া হল সুজনকে

টাইমস আই বেঙ্গলী ডটকম, ঢাকা: বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক এবং বিসিবির পরিচালক খালেদ মাহমুদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে থাকে সোমবার সকাল থেকে। লাইফ সাপোর্ট খুলে নেয়া হয়। পরে এমআরআই করানো হলে দেখা যায় রিপোর্টও ভালো। তবুও কোনো ঝুঁকি নেয়া হয়নি। উন্নত চিকিৎসার জন্য মধ্য রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সিঙ্গাপুরে। মাহমুদের সঙ্গে গেছেন তার বড় ছেলে এবং বিসিবির একজন চিকিৎসক। এর আগে কাল দুপুরে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে তাকে দেখতে যান বিসিবি (বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড) প্রধান নাজমুল হাসান।
তিনি বলেন, ‘রোববার রাতে সে কোনো সাড়া দিচ্ছিল না। সোমবার সকালে অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও পুরোপুরি শঙ্কামুক্ত হয়নি। রাতে ওকে সিঙ্গাপুরে পাঠাচ্ছি। আশা করি, তিন-চারদিনের মধ্যে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে আগের সুজন ফিরে আসবে।’
ইউনাইটেড হাসপাতালে ডা. ইকবালের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিলেন বিসিবির গেমস ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান এবং জাতীয় ক্রিকেট দলের ম্যানেজার সাবেক অলরাউন্ডার খালেদ মাহমুদ।
এদিকে সোমবার বিকেলে হাসপাতালে তাকে দেখতে যান মাহমুদউল্লাহ। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার আজকের মাহমুদউল্লাহ হওয়ার পেছনে যে মানুষটির সবচেয়ে বড় অবদান, তিনি আমাদের সুজন ভাই। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে তাকে আমি কাছে পেয়েছি। তার বুদ্ধি, পরামর্শ ও অনুপ্রেরণায় শুধু আমি একা নই, জাতীয় দলের অনেক ক্রিকেটার গড়ে উঠেছে। সারাজীবন উনার কাছে কৃতজ্ঞ থাকব।’
কক্সবাজারে সাবেক ক্রিকেটারদের মাস্টার্স ক্রিকেট কার্নিভালে খেলে শুক্রবার ঢাকা ফেরেন মাহমুদ। শনিবার রাতে বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় রোববার দুপুরে ভর্তি করা হয় ইউনাইটেড হাসপাতালে। তাকে রাখা হয় আইসিইউতে। মাহমুদ উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসে ভুগছেন। কাল পরিবারের একটি সূত্র জানায়, তিনি ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘স্ট্রোক নয়, অতিরিক্ত মানসিক চাপে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন সুজন।’
৪৭ বছর বয়সী খালেদ মাহমুদ বাংলাদেশের তৃতীয় টেস্ট অধিনায়ক। ২০০৬ সালে তিনি অবসর নেন। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের নায়ক ‘চাচা’ খ্যাত মাহমুদ ২০০৩ সালে মুলতানে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রায় জেতা টেস্ট ম্যাচে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশকে। বর্তমানে তিনি বিসিবির গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান ও জাতীয় দলের ম্যানেজার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *